রবিবার , ১৬ অক্টোবর ২০২২ | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. ! Без рубрики
  2. English News
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. কাতার বিশ্বকাপ
  7. কৃষি ও প্রকৃতি
  8. ক্যাম্পাস
  9. খুলনা
  10. খেলা
  11. চট্টগ্রাম
  12. চাকরি
  13. জাতীয়
  14. জীবনযাপন
  15. জোকস

অটোর চাপে সুন্দরগঞ্জ শহরবাসী’র নাভিশ্বাস উঠেছে

প্রতিবেদক
নিউজ ডেস্ক
অক্টোবর ১৬, ২০২২ ২:৩২ অপরাহ্ণ
অটোর চাপে সুন্দরগঞ্জ শহরবাসী’র নাভিশ্বাস উঠেছে

মিজানুর রহমান,সুন্দরগঞ্জ(গাইবান্ধা)প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ পৌর শহরে বিদ্যুতের চার্জে চালিত অটোর চাপে মানুষের চলাফেরায় নাভিশ্বাস উঠেছে। প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত পৌর শহরের প্রধান কয়েকটি সড়কে যানজট তীব্র আকার ধারণ করে। কারণ শহরের মোড়গুলো প্রশস্ত নয় এবং প্রধান সড়কগুলো একেবারেই সরু।

এ সমস্যার মূল কারণ অটো স্ট্যান্ড না থাকা। অনেক আগে পৌরসভা থেকে স্ট্যান্ড দেওয়ার সাইনবোর্ড লাগানো আছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত তার কোন বাস্তবায়ন দেখেনি পৌরবাসী।

এদিকে শহরে নির্ধারিত কোনো স্ট্যান্ড না থাকার কারণে যেখানে সেখানে অটো পার্কিং করা হচ্ছে। অদক্ষ চালকরা রাস্তায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে রাখে অটো। রাস্তার মাঝখানে বা মোড়ে দাঁড়িয়েই যাত্রী উঠানো নামানো চলে। দীর্ঘ যানজটের জন্যে শহরে যানবাহন চলাচলের অব্যবস্থাপনাকেও অনেকে দায়ী করেন। বাহিরগোলা মোড়, বঙ্গবন্ধু চত্তর,কলেজ মোড়,কাঁঠালতলী মোড়, পৌর বাজারসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক যেন অটোরিকশার দখলে। চারদিক থেকে গাড়ি এসে মোড় অতিক্রম করে। মোড়গুলো এমনিতেই প্রশস্ত নয়, এর সঙ্গে যোগ হয় গাড়ি ও চালকরা। নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে পুরো মোড়জুড়ে শত শত গাড়ির জটলা পাকিয়ে রাখেন।

শহরের সবচেয়ে ব্যস্ততম সড়ক ও মোড়ে লাগামহীন এসব অটো রাখার কারণে দূর্ভোগে পড়ছে এলাকাবাসী।
উল্লেখ্য, বাহিরগোলা মোড় থেকে কাঁঠালতলী মোড় সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক। পূর্ব-উত্তর, উত্তর ও উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও ফায়ার সার্ভিসে যাতায়াতের একমাত্র রাস্তা। এছাড়াও শহরের দক্ষিণ, দক্ষিণ পশ্চিম ও দক্ষিণ পূর্ব দিক থেকে সুন্দরগঞ্জ থানায় যাতায়াতের রাস্তা। আর এই রাস্তায় অটোর জন্য সাধারণ মানুষের ও অন্য যানবাহন চলাচল খুবই কষ্টকর।

স্থানীয়রা জানান, নির্ধারিত স্ট্যান্ডে অটো পার্কিং করার কোন পদক্ষেপ না নেওয়ার কারণে সমস্যা হয়। এছাড়াও বাহিরগোলা থেকে কাঁঠালতলী মোড় সড়কে এম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ও থানার গাড়ি প্রায় চলাচল করতে অনেক সময় সমস্যার সৃষ্টি হয়। আর এসব সেবামূলক গাড়ি চলাচলে সমস্যা হলে যে সময় অতিবাহিত হয়, এই সময়ে ঘটে যেতে পারে বড় কোন দুর্ঘটনা। তাই কর্তৃপক্ষের কাছে আমাদের দ্বাবি এই বিষয়ে দূত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হউক।

পৌরসভার বাসিন্দা মিজানুর রহমান বলেন, বাহিরগোলা মোড় থেকে কাঁঠালতলী মোড়ের মত গুরুত্বপূর্ণ সড়কে এমনভাবে অটো রাখা হয় এবং যাত্রী উঠানামা করা হয় যা মানুষের চরম দূর্ভোগের সৃষ্টি করে। কয়েক দিন আগে আমার ছেলের হঠাৎ স্বাস-প্রস্বাসে সমস্যা হয়। আমার ছেলের বয়স ২ মাস। আমি রিকশাযোগে তাকে নিয়ে হাসপাতালে নিয়ে যাই। কিন্তু বাহিরগোলা মোড় থেকে কাঁঠালতলী মোড় অতিক্রম করতে প্রায় ১৫ মিনিট সময় লাগে। অথচ বাহিরগোলা মোড় থেকে কাঁঠালতলী মোড় পার হতে সময় লাগে মাত্র ১ মিনিট। সে দিন কষ্টে বুক ফেটে যাচ্ছিল আমার ছেলে বাঁচবে কিনা এই ভেবে। আর মনে হচ্ছিল কোথায় বাস করছি।

এ বিষয়ে পৌর মেয়র আবদুর রশিদ রেজা সরকার বলেন, আমরা ২ দিনের মধ্যে মাইকিং করে সকলকে জানিয়ে দিব এবং খুব তারাতারি নির্দিষ্ট স্থানে অটো স্ট্যান্ড করব। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, অটো স্ট্যান্ডের নির্দিষ্ট স্থান নির্ধারণ করা থাকলেও বিষয়টি আমাদের সে ভাবে গুরুত্ব দেয়া হয়নি। তবে আমরা এক সপ্তাহের মধ্যে এ সমস্যার সমাধান করব।

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল ডিবিনিউজ৭১.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন dbnews71.bd@gmail.com ঠিকানায়।

সর্বশেষ - রংপুর