মঙ্গলবার , ১১ জুলাই ২০২৩ | ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. কাতার বিশ্বকাপ
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খুলনা
  8. খেলা
  9. চট্টগ্রাম
  10. চাকরি
  11. জাতীয়
  12. জীবনযাপন
  13. জোকস
  14. ঢাকা
  15. তথ্যপ্রযুক্তি

মধ্যরাতে ইবি চিকিৎসা কেন্দ্রের জরুরী কক্ষে ভাঙচুর

প্রতিবেদক
নিউজ ডেস্ক
জুলাই ১১, ২০২৩ ৭:১০ অপরাহ্ণ
মধ্যরাতে ইবি চিকিৎসা কেন্দ্রের জরুরী কক্ষে ভাঙচুর

ইবি প্রতিনিধি:
মধ্যরাতে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) চিকিৎসা কেন্দ্রের জরুরী কক্ষ ভাঙচুরের ঘটনা ঘটছে। সোমবার রাত সাড়ে ১১টায় আইন বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী রেজওয়ান সিদ্দিকী কাব্য ও তার অপর দুই সহযাগী এ ঘটনা ঘটিয়ছে বলে অভিযোগ করেছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য, কোষাধ্যক্ষ ও প্রক্টর ঘটনাস্থল পরিদরর্শন করেন। এসময় তারা ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের কথা জানান। এদিকে দুপুর ২টায় চীফ মেডিকল অফিসার ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের শাস্তি নিশ্চিতের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রজিস্ট্রার এইচ এম আলী হাসান বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন রেজিস্ট্রার দফতর।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে, সোমবার রাত ১০টার দিকে বুকে ব্যাথার চিকিৎসা নিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্র যান কাব্য। দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে চিকিৎসা দিলেও আধা ঘটা পর ফের কাব্য ও তার সহযোগীরা মেডিকলে যান। এসময় তিনি কুষ্টিয়া সদর হাসপাতাল যাওয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের এ্যাম্বুলন্সের সহযাগিতা চান। এ্যাম্বুলেন্স দিতে কিছুটা দেরি হওয়ায় ক্ষীপ্ত হয়ে চিকিৎসা কেদ্রের জরুরী কক্ষের চেয়ার-টেবিল ও টেলিফোন লাইন ভাঙচুর করেন তিনি। তার অপর দুই সহযাগী ছিলন একই বিভাগের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের সালমান আজিজ ও আতিক আরমান। এসময় কাব্য এ্যাম্বুলন্সের চালকের জামার কলার চেপে ধরে জোর করে তাকে গাড়িতে উঠায় ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। জোরপূর্বক এ্যাম্বুলেন্স নিয়ে যাওয়ার সময় বিশ্ববিদ্যালয়র সহকারী প্রক্টর ড. শফিকুল ইসলাম ও সিকিউরিটি অফিসার আব্দুস সালাম সেলিম তাকে বাঁধা দেওয়ার চেষ্টা করে। তখন তাদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ ও বাকবিতন্ডায় জড়ায় কাব্য। একপর্যায় রাত ১২টার দিকে এ্যাম্বুলেন্সে তাকে কুষ্টিয়া যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়। কিন্তু কুষ্টিয়া না গিয়ে ক্যাম্পাস থেকে তিন কিলামিটার দূরে লক্ষীপুর বাজারের একটি ফার্মেসি থেকে ঔষধ নিয়ে আবারো তার মেসে ফিরে আসেন কাব্য। সেখানে দশ-পনেরা মিনিট অবস্থান করে আবারো এ্যাম্বুলন্সে করে মধুপুর গিয়ে নেমে যান তিনি। পরে রাত একটার দিক খালি এ্যাম্বুলন্স নিয়ে ক্যাম্পাসে ফিরে আসেন বলে জানিয়েছেন এ্যাম্বুলেন্সের চালক।

আরো – পারভেজ-নীরবের নেতৃত্বে ইবির মিউজিক অ্যাসোসিয়েশন

এম্বুলেন্সের চালক শাহিনুজ্জামান বলেন, আমাকে তিনি (কাব্য) ফোন দিয়ে গাড়ি নিয়ে যেতে বলে এবং পরিচয় জানতে চাইলে হুমকি দিতে থাকে। পরে খোঁজাখুজি করে তাকে ক্যাম্পাসের বাইরে বিএমএস ছাত্রাবাসের পাশে ঘাসের উপর শুয়ে থাকা অবস্থায় পাই। মেডিকল নিয়ে আসার পর ডাক্তার তাকে ইনজেকশন দেন। কিন্তু তিনি কুষ্টিয়া যেতে চাইলে প্রক্টরিয়াল বডির অনুমতি না থাকায় আমি গাড়ি দিতে রাজি না হলে আমার শার্টের কলার ধরে মারধর করে।

তবে এ ঘটনা অস্বীকার করে রেজওয়ান সিদ্দিকী কাব্য বলেন, প্রচন্ড বুকের ব্যাথা নিয়ে ডাক্তারের কাছে গেলেও আমাকে গুরুত্ব দেওয়া হছিলা না। তিনি চেম্বারে শুয়ে ছিলেন। পরে ফ্রেশ হয়ে আসতে বিলম্ব হওয়ায় আমার পায়ে ধাক্কা লেগে টেবিল-চেয়ার পড়ে যায়। কুষ্টিয়া না গিয়ে মধুপুর নেমে যাওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ওই সময় আমার ব্যাথাটা কিছুটা কমে যায়। তখন একটা ফার্মেসী খোলা দেখে সেখান থেকে কিছু ঔষধ নিয়ে আবার ফেরত চলে আসি।

কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: ওয়াহিদুল হাসান বলেন, বুকের ব্যথার জন্য চিকিৎসা নিতে আসলে কাব্যকে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়। পরে আবার সে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে যাওয়ার জন্য এ্যাম্বুলেন্স চায়। এ্যাম্বুলেন্স দিতে দেরি হওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে সে ভাংচুর চালায়।

চীফ মেডিকেল অফিসার ডা: সিরাজুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তপক্ষকে তাৎক্ষনিক জানানো হয়। আমরা দুপুর দুইটায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। যাতে এদের কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তপক্ষ।

প্রক্টর অধ্যাপক ড. শাহাদৎ হোসেন আজাদ বলেন, আমি সহ প্রো-ভিসি ও ট্রেজারার মহোদয় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। মেডিকল কর্তপক্ষকে রেজিস্ট্রার বরাবর লিখিত অভিযোগ দিতে বলেছি। লিখিত অভিযোগের আলোকে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহবুবুর রহমান বলেন, আমি ঘটনাস্থল ভিজিট করছি। ওখানে যে ঘটনা ঘটেছে তা উনাদেরকে লিখিত আকারে দিতে বলেছি। দ্রুততম সময়ের মধ্যে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

উল্লেখ্য, এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে ছিনতাই, ক্যাম্পাসে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সাংবাদিকদের হুমকি দেওয়ার ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কৃত হয়েছিলেন কাব্য।

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল ডিবিনিউজ৭১.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন dbnews71.bd@gmail.com ঠিকানায়।

সর্বশেষ - ক্যাম্পাস